ঢাকা রবিবার, ৩ মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১৯ ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ২১ শাবান, ১৪৪৫ হিজরি

বিভাগসমূহ

শ্রীমঙ্গলে ‘টেকসই ও নিরাপদ চা উৎপাদনে ইয়োলো স্টিকি ট্র্যাপ’ পরিদর্শন

আতাউর রহমান কাজল, শ্রীমঙ্গল || ২:৩৪ অপরাহ্ণ ॥ মে ৭, ২০২৩

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এএইচএম শফিকুজ্জামান এর নেতৃত্ত্বে একটি টিম বাংলাদেশ চা বোর্ড কর্তৃক বাস্তবায়িত “টেকসই ও নিরাপদ চা উৎপাদনে ইয়োলো স্টিকি ট্র্যাপ বা আঠালো হলুদ ফাঁদ” শিরোনামে একটি উদ্ভাবনী উদ্যোগ পরিদর্শন করেন।

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর কর্তৃক আয়োজিত বাংলাদেশ চা গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিটিআরআই) এর পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) ড. মোঃ ইসমাইল হোসেন এর স্বাগত বক্তব্যের মধ্য দিয়ে বিটিআরআই এর সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে উদ্ভাবনী উদ্যোগটির বিষয়ে পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন উপস্হাপন করেন বিটিআরআই এর কীটতত্ত্ব বিভাগের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মোহাম্মদ শামীম আল মামুন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ চা বোর্ডের প্রকল্প উন্নয়ন ইউনিটের পরিচালক ড. একেএম রফিকুল হক। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের পরিচালক মঞ্জুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার, সিলেট বিভাগের উপ পরিচালক মোঃ ফখরুল ইসলাম।

অনুষ্ঠান শেষে বিটিআরআই এর প্রদর্শনী প্লটে স্থাপিত ইয়োলো স্টিকি ট্র্যাপ বা আঠালো হলুদ ফাঁদ প্রযুক্তিটি সরেজমিনে পরিদর্শন করেন।

প্রসঙ্গতঃ নিরাপদ চা উৎপাদনে চায়ের সমন্বিত বালাই ব্যবস্থাপনার আওতায় ইয়োলো স্টিকি ট্র্যাপ বা আঠালো হলুদ ফাঁদ প্রযুক্তিটি উদ্ভাবন করেন বাংলাদেশ চা গবেষণা ইনস্টিটিউটের কীটতত্ত্ব বিভাগের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মোহাম্মদ শামীম আল মামুন এবং পরবর্তীতে প্রযুক্তিটির মাঠ পর্যায়ে ভ্যালিডেশন ট্রায়াল সম্পন্ন করেন বাংলাদেশ চা বোর্ডের প্রকল্প উন্নয়নের ইউনিটের পরিচালক ড. একেএম রফিকুল হক।

বর্তমানে চায়ের পোকামাকড় বিশেষ করে থ্রিপ্স দমনে বাংলাদেশের ডানকান, ফিনলে, ইস্পাহানীসহ অনেক চা বাগানেই প্রযুক্তিটি ব্যবহৃত হচ্ছে। এ প্রযুক্তি ব্যবহার করে চা বাগানে উপকারী পোকামাকড় সংরক্ষণের পাশাপাশি রাসায়নিক কীটনাশকের ব্যবহার কমানো ও তৈরি চায়ে কীটনাশকের অবশিষ্টাংশ হ্রাস বা নির্মুল করা সম্ভব।

Print Friendly, PDF & Email

সম্পাদক ও প্রকাশক

 

ওয়েবসাইট: www.prothomdesh.com

 

উপদেষ্টা সম্পাদক