ঢাকা শুক্রবার, ১৪ জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩১ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৭ জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

বিভাগসমূহ

সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের প্রেস ব্রিফিং

ওবায়দুল ইসলাম নীলফামারী ঃ || ১০:১৪ অপরাহ্ণ ॥ মার্চ ২১, ২০২৩

প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্ন দেশে কোন গৃহহীন মানুষ থাকবে না। তাঁর ওই স্বপ্ন বাস্তবায়ন হতে চলেছে। সারা দেশে প্রথম,দ্বিতীয়,তৃতীয় ও চতুর্থ পর্যায়ে চলছে ঘর বরাদ্দ। তারই অংশ হিসাবে ২২ মার্চ প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক ভুমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের জন্য চতুর্থ পর্যায়ে উপকারভোগি পরিবারের নিকট জমিসহ গৃহ হস্তান্তর করা হবে। আর ওই কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি গণভবন প্রাপ্ত হতে দেশের সকল উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে ভিডিও কনফারেনসিং এ সংযুক্ত থাকবেন।
এ উপলক্ষে ২১ মার্চ বিকেল ৩ টায় সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফয়সাল রায়হান এক প্রেস ব্রিফিং এ মিলিত হন। তাঁর কক্ষে ওই প্রেস ব্রিফিং এ অংশ নেয় সৈয়দপুরের প্রিন্ট ও ইলেকট্রিক মিডিয়ার কর্মরত সাংবাদিকরা।
এ সময় সৈয়দপুর নীলফামারী নির্বাহী অফিসার ফয়সাল রায়হান বলেন, চতুর্থ পর্যায় ১১৫ জনকে ঘর বরাদ্দ দেয়া হবে। তার মধ্যে বাঙ্গালীপুর ইউনিয়নে ৩৭ জন এবং বোতলাগাড়ী ইউনিয়নে ৭৮ জন। এদেরকে আমরা বিভিন্নভাবে তদন্তের মাধ্যমে ভুমিহীন বলে নির্বাচিত করেছি। তারপরও যদি কেউ ভুমিহীন না হয়েও ঘর পেয়ে থাকে , প্রমাণ সাপেক্ষে তা আমরা বাতিলের ক্ষমতা রাখি। তবে আমরা চেষ্ঠা করেছি প্রকৃত ভুমিহীনরাই ঘর পেয়েছে। তিনি বলেন,দুই শতক জমির ওপর নির্মিত ঘর নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ২ লাখ ৮৪ হাজার টাকা। তাদের মধ্যে লিজ দেয়া হচ্ছে ৯৯ বছরের।
পরবর্তীতে আরও ১৩১ টি ঘর বরাদ্দ দেয়া হবে।
এ সময় ঘরের বরাদ্দ ও নির্মাণ নিয়ে বিভিন্ন বিষয়ে কথা বলেন প্রেসক্লাবের সহসভাপতি এম এ করিম মিস্টার, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল ইসলাম, নির্বাহী কমিটির অন্যতম সদস্য নজরুল ইসলাম, সাংবাদিক মোতালেব হোসেন হক, জাহিদুল ইসলাম জাহিদ,এম আর টুটুলসহ অনেকে।
ঘর বরাদ্দের বিষয়ে প্রকৃত গৃহহীন ও ভুমিহীন নির্ণয়ে সাংবাদিকদের সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন তিনি।

Print Friendly, PDF & Email