ঢাকা রবিবার, ৩ মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১৯ ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ২১ শাবান, ১৪৪৫ হিজরি

বিভাগসমূহ

শ্রীমঙ্গলে ক্রেতা সেজে হুতুম পেঁচা উদ্ধার করল বন্যপ্রাণী বিভাগ

আতাউর রহমান কাজল, শ্রীমঙ্গল || ১২:১০ অপরাহ্ণ ॥ ফেব্রুয়ারি ১০, ২০২৩

ক্রেতা সেজে একটি বিরল প্রজাতির হুতুম পেঁচা উদ্ধার করেছে শ্রীমঙ্গল বন্যপ্রাণী ব্যবস্হাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষন কিভাগ।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১২ টায় মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলার মাধবপাশা এলাকার হাফিজুর রহমান এর বাড়িতে তল্লাশী চালিয়ে পেঁচাটি উদ্বার করা হয়।

বন্যপ্রাণী ব্যবস্হাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষন বিভাগ মৌলভীবাজার বন্যপ্রাণী রেঞ্জের শ্রীমঙ্গল কার্যালয়ের ওয়াইল্ডলাইফ রেঞ্জার মো. শহিদুল ইসলাম জানান, বুধবার রাতে মাধবপাশা এলাকায় একটি হুতুম পেঁচা ধরা পড়ে। বাড়িতে থাকা হাফিজুর রহমান পেঁচাটিকে আটক করে বিক্রির জন্য ক্রেতা খুঁজতে ফেসবুকে পোস্ট দেয়। পরে ফেসবুকে দেয়া পোস্টটি ওয়াইল্ডলাইফ রেঞ্জার শহিদুল ইসলামের নজরে আসে।

শহিদুল ইসলাম আরো জানান, পরে তিনি কৌশল অবলম্বন করে ক্রেতা সেজে ওই যুবকের সাথে যোগাযোগ করে তার বাড়িতে যান। এ সময় তার সাথে ছিলেন বন্যপ্রাণী ব্যবস্হাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের সহকারী বন সংরক্ষক শ্যামল কুমার মিত্র, জুনিয়র ওয়াইল্ড লাইফ স্কাউট তাজুল ইসলাম, ফরেস্ট গার্ড সুব্রত সরকার প্রমুখ।

শহিদুল ইসলাম বলেন, ‘ফেসবুকে পোস্টটি দেখে আমি নিজেই ক্রেতা সেজে হাফিজুর রহমানকে ফেসবুক পোস্টে দেয়া নাম্বারে ফোন করি। সে পেঁচাটির দাম ২ হাজার ৫০০ টাকা হলে বিক্রি করবে বলে জানায়। আমি নিতে রাজি হই। পরে তার কাছ থেকে ঠিকানা নিয়ে আমরা তার বাড়িতে যাই। আমাদের গাড়ি দেখে হাফিজুর বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যায়। পরে বাড়িতে তল্লাশী করে পেঁচাটি উদ্ধার করি।

শহিদুল ইসলাম জানান, পেঁচাটিকে অক্ষত অবস্হায় উদ্ধার করি এবং এটি সুস্থ অবস্থায় আছে। পরে বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮ টার দিকে লাউয়াছড়া জাতীয় পার্কে পেঁচাটিকে অবমুক্ত করে দেয়া হয়।

Print Friendly, PDF & Email

সম্পাদক ও প্রকাশক

 

ওয়েবসাইট: www.prothomdesh.com

 

উপদেষ্টা সম্পাদক